চৌদ্দগ্রামের হত্যা মামলায় খালেদার জামিন স্থগিত

রাজনীতি

বিজয় ডেস্ক: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী বাসে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাই কোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার বিচারপতি।

রোববার (৩১ মার্চ) হাই কোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা এক আবেদনের শুনানি নিয়ে চেম্বার বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান এ আদেশ দেন। হাই কোর্টের আদেশ আগামী ৭ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করেন তিনি। একই সঙ্গে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনটি ওই দিন (৭ এপ্রিল) আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দিয়েছেন চেম্বার বিচারপতি।

জামিন চেয়ে করা এক আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ৬ মার্চ হাই কোর্ট রুল দিয়ে খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন। এই জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করে, যা আজ চেম্বার বিচারপতির আদালতে ওঠে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোমতাজ উদ্দিন ফকির, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ ও মো. বশির উল্লাহ। খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, মাহবুব উদ্দিন খোকন ও কায়সার কামাল।

পরে বশির উল্লাহ বলেন, খালেদা জিয়াকে হাই কোর্টের দেয়া জামিন ৭ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। ওই দিন আবেদনটি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়েছেন চেম্বার বিচারপতি।

এই মামলায় গত ৪ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লার আদালত খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর করেন। এরপর এই মামলায় জামিন চেয়ে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি হাই কোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া।

২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি রাতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার জগমোহনপুর এলাকায় কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রলবোমা হামলা হয়। এতে আটজন যাত্রী অগ্নিদগ্ধ হয়ে নিহত ও ২৭ জন আহত হন। ঘটনায় পরদিন ৩ ফেব্রুয়ারি ৫৬ জন বিএনপি ও জামায়াতের নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ১৫ থেকে ২০ জনের বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলাটি দায়ের করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন খালেদা জিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *