ঢাকা ১১:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবৈধ ইটভাটা বন্ধে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা

গারা দেশে বিদ্যমান অবৈধ ইটভাটা বন্ধে জেলা প্রশাসকদের বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘সারা দেশে অবৈধ ইটভাটায় ভরে গেছে। আমরা এগুলো রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছি। আমরা সাধারণ মানুষকেও পরিবেশবান্ধব ব্লক ইট ব্যবহারে উৎসাহিত করছি।’

আজ বুধবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত জেলা প্রশাসক সম্মেলনে বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

 নিউজ বিজয়ের সর্বশেষ খবর পেতে Google News অনুসরণ করুন

তিনি বলেন, যারা পরিবেশবান্ধব ব্লক ইট তৈরি করতে চায় তাদের সহজ শর্তে আমরা ঋণ দেব। তাদের জন্য প্রয়োজনে বাজেটে আরও বরাদ্দ রাখার চেষ্টা করবো। তবুও আমরা চাই আমাদের পরিবেশ ভালো থাকুক।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের বনাঞ্চল কমে যাচ্ছে, জেলা প্রশাসক সম্মেলনে আমরা এবিষয়েও ডিসিদের নির্দেশনা দিয়েছি। আমাদের বনগুলো এরইমধ্যে অনেক সংকুচিত হয়ে আসছে। যেগুলো আছে সেগুলো আমাদের ধরে রাখতে হবে।

তিনি বলেন, টিলা কাটা, গাছ কাটা, বন উজাড় করা, অবৈধ ইটভাটা, যেগুলো পরিবেশের ক্ষতি করছে, পরিবেশের ক্ষতি করা প্লাস্টিক ও পলিথিন বিষয়ে উনাদের করণীয়, পাখি নিধন বন্ধ, পরিবেশ ও প্রতিবেশ সুরক্ষার জন্য যে আইন রয়েছে, সেই আইন অনুযায়ী যাতে আমাদের সহযোগিতা করেন, সে বিষয়ে সহযোগিতা চেয়েছি। উনারা কথা দিয়েছেন আমাদের সহযোগিতা করবেন। পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় যেটুকু সরকারি দায়িত্ব রয়েছে তারা সেটা পালন করবেন।

ডিসিদের পক্ষ থেকে কী প্রস্তাব ছিল- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, উনারা অনেক কিছু জানতে চেয়েছেন। আমাদের সচিব মহোদয় সেগুলোর জবাব দিয়েছেন। অনেক জেলায় আমাদের পরিবেশ অধিদপ্তরের অফিস নেই। আমরা তাদের আশ্বস্ত করেছি, বাকি ১৪ জেলায় অফিস করব, সেখানে কর্মকর্তা নিয়োগ দেব।

পরিবেশবান্ধব ইট উৎপাদন বৃদ্ধিকে উৎসাহিত করতে সরকারের কোনো উদ্যোগ আছে কি না, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ২০২৫ সালের মধ্যে সরকারি স্থাপনায় শতভাগ পরিবেশবান্ধব ইট ব্যবহার করা হবে। সেই আলোকে প্রজ্ঞাপনও জারি হয়েছে। পরিবেশবান্ধব ইট যারা করবে, তাদের আমরা সহযোগিতা করব। তারা যাতে সহজে ব্যাংক লোন পান, আমরা সেই ব্যবস্থা করব।

এর আগে মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) তিন দিনব্যাপী বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া। স্বাগত বক্তব্য দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy24

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।
জনপ্রিয় সংবাদ

Nagad-Fifa-WorldCup

কুড়িগ্রামে চালু হলো এক টাকার রেস্টুরেন্ট

google.com, pub-9120502827902997, DIRECT, f08c47fec0942fa0

অবৈধ ইটভাটা বন্ধে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা

প্রকাশিত সময়: ১২:২৬:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩

গারা দেশে বিদ্যমান অবৈধ ইটভাটা বন্ধে জেলা প্রশাসকদের বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘সারা দেশে অবৈধ ইটভাটায় ভরে গেছে। আমরা এগুলো রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছি। আমরা সাধারণ মানুষকেও পরিবেশবান্ধব ব্লক ইট ব্যবহারে উৎসাহিত করছি।’

আজ বুধবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত জেলা প্রশাসক সম্মেলনে বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

 নিউজ বিজয়ের সর্বশেষ খবর পেতে Google News অনুসরণ করুন

তিনি বলেন, যারা পরিবেশবান্ধব ব্লক ইট তৈরি করতে চায় তাদের সহজ শর্তে আমরা ঋণ দেব। তাদের জন্য প্রয়োজনে বাজেটে আরও বরাদ্দ রাখার চেষ্টা করবো। তবুও আমরা চাই আমাদের পরিবেশ ভালো থাকুক।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের বনাঞ্চল কমে যাচ্ছে, জেলা প্রশাসক সম্মেলনে আমরা এবিষয়েও ডিসিদের নির্দেশনা দিয়েছি। আমাদের বনগুলো এরইমধ্যে অনেক সংকুচিত হয়ে আসছে। যেগুলো আছে সেগুলো আমাদের ধরে রাখতে হবে।

তিনি বলেন, টিলা কাটা, গাছ কাটা, বন উজাড় করা, অবৈধ ইটভাটা, যেগুলো পরিবেশের ক্ষতি করছে, পরিবেশের ক্ষতি করা প্লাস্টিক ও পলিথিন বিষয়ে উনাদের করণীয়, পাখি নিধন বন্ধ, পরিবেশ ও প্রতিবেশ সুরক্ষার জন্য যে আইন রয়েছে, সেই আইন অনুযায়ী যাতে আমাদের সহযোগিতা করেন, সে বিষয়ে সহযোগিতা চেয়েছি। উনারা কথা দিয়েছেন আমাদের সহযোগিতা করবেন। পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় যেটুকু সরকারি দায়িত্ব রয়েছে তারা সেটা পালন করবেন।

ডিসিদের পক্ষ থেকে কী প্রস্তাব ছিল- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, উনারা অনেক কিছু জানতে চেয়েছেন। আমাদের সচিব মহোদয় সেগুলোর জবাব দিয়েছেন। অনেক জেলায় আমাদের পরিবেশ অধিদপ্তরের অফিস নেই। আমরা তাদের আশ্বস্ত করেছি, বাকি ১৪ জেলায় অফিস করব, সেখানে কর্মকর্তা নিয়োগ দেব।

পরিবেশবান্ধব ইট উৎপাদন বৃদ্ধিকে উৎসাহিত করতে সরকারের কোনো উদ্যোগ আছে কি না, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ২০২৫ সালের মধ্যে সরকারি স্থাপনায় শতভাগ পরিবেশবান্ধব ইট ব্যবহার করা হবে। সেই আলোকে প্রজ্ঞাপনও জারি হয়েছে। পরিবেশবান্ধব ইট যারা করবে, তাদের আমরা সহযোগিতা করব। তারা যাতে সহজে ব্যাংক লোন পান, আমরা সেই ব্যবস্থা করব।

এর আগে মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) তিন দিনব্যাপী বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া। স্বাগত বক্তব্য দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন