আদিতমারীতে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

আদিতমারী (লালমনিরহাট) প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শওকত আলীকে (৫০) কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।
সোমবার (১৯ মার্চ) দুপুরে লালমনিরহাট আদালতের বিচারক দায়রা জজ কেএম মোস্তাকিনুর রহমান জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
আদালত ও মামলার বিবরনে জানা গেছে, আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মদনপুর খামারটারী গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে সুজন মিয়ার সাথে গত বছর হাতীবান্ধা উপজেলার ভেলাগুড়ি এলাকার আশরাফুলের মেয়ে আরফিনা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পরদিন তাদের মাঝে ঝগড়া বাঁধে। এক পর্যয়ে নববধু আরফিনা তার স্বামী সুজনের লিঙ্গ কেটে দেন।
এ বিষয়ে উভয় পক্ষকে নিয়ে নিজ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে বৈঠকে বসেন পলাশী ইউপি চেয়ারম্যান শওকত আলী। এ সময় নববধুকে আটকিয়ে জোরপুর্বক তালাক নামায় স্বাক্ষর করে নেন ইউপি চেয়ারম্যান। এ ঘটনায় ওই নববধু আরফিনা বাদি হয়ে ইউপি চেয়ারম্যানসহ স্বামীর পরিবারের কয়েকজনকে আসামী করে সিআর এসপি ২৫৬ নং মামলা দায়ের করেন।

এ মামলায় আসামী ইউপি চেয়ারম্যান  শওকত আলী আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

লালমনিরহাট আদালতে পুলিশ পরিদর্শক (কোর্ট ওসি) জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাদিককে জানান, আদালত আসামী শওকত আলীর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon