ঢাকা ০৯:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ফলো আপ

উলিপুরে জবাই করে রফিকুল হত্যার জট খুলছে! কিলিং মিশনে ব্যবহৃত ছুরি,মোবাইল ও টাকা উদ্ধার

কুড়িগ্রামের উলিপুরে রফিকুলকে জবাই করে হত্যার চাঞ্চল্যকর মামলার জট খুলতে শুরু করেছে। হত্যাকাণ্ডের দিন সকালেই হত্যাকাণ্ডের শিকার রফিকুলের ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশী আলিফ উদ্দিনের পুত্র রফিকুলকে সন্দেহজনকভাবে পুলিশ আটক করে এবং তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতেই কিলিং মেশিনে জড়িত ফেরদৌস আলী গামা নামের আরো একজনকে আটক করেছে পুলিশ।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেছে অর্থের লোভেই কিলিং মিশনে জড়িত কয়েকজন মিলে রফিকুলকে জবাই করে হত্যা করে। হত্যাকান্ডের শিকার রফিকুলের স্ত্রী লাইজু বেগম শুক্রবার রাতেই উলিপুর থানায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। কিলিং মিশনে জড়িত অন্যদের দ্রুত গ্রেফতারে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে জেলার উলিপুর উপজেলার ধরণীবাড়ি ইউনিয়নের তেলীপাড়া গ্রামের আবুল হোসেন (ফাগু)এর পুত্র অটোচালক রফিকুল ইসলামকে কতিপয় দুর্বৃত্ত্ব জবাই করে হত্যার লাশ রাস্তার পাশে একটি বাঁশ ঝাড়ে রেখে যায় ।
শুক্রবার ভোরে তেলিপাড়া গ্রামের কয়েকজন মুসুল্লি ফজরের নামাজ পড়তে এসে লাশটি দেখতে পায় এবং পুলিশে খবর দেয়। উলিপুর থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির পর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠিয়ে দেয়।

এদিকে চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে কুড়িগ্রাম থেকে সিআইডির একটি চৌকস দল সকালেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও প্রয়োজনীয় আলামত সংগ্রহ করেন। কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম ঐদিনই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ঘটনা দ্রুত উদঘাটনে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

 নিউজ বিজয়ের সর্বশেষ খবর পেতে Google News অনুসরণ করুন

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শাহ আলম ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের ব্যাপারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান। রফিকুলের স্ত্রী লাইজু বেগম জানান, তার স্বামী রফিকুল (৩৫) প্রথম বাদাম বিক্রি করে সংসার চালাত এতে দিনকাল ভালো না যাওয়ায় চায়ের দোকানে মেসিয়ারির কাজ করেন বেশ কিছুদিন। পরবর্তীতে বিভিন্ন এনজিওর কাছ থেকে লোন নিয়ে কিছুদিন আগে একটি অটো রিক্সা ক্রয় করেন। সেটি সম্প্রতি বিক্রি করা হয়েছে বলে জানান তিনি। সেই অটো বিক্রির ৮০ হাজার টাকা সহ ঘটনার আগের দিন আশা এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকা লোন নেন। এই টাকাটা সম্পূর্ণ তার স্বামীর কাছে ছিল বলে তিনি দাবি করেন এবং এই টাকার জন্যই তার স্বামীকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। স্বামী খুন হওয়ার পর লাইজুর জীবনে এখন চরম অনিশ্চয়তা। অবুঝ দুই সন্তানকে নিয়ে কিভাবে জীবিকা নির্বাহ করবে সে চিন্তায় লাইজু এখন দিশেহারা।শনিবার পুলিশ আসামি রফিকুল ও ফেরদৌস আলী গামাকে আদালতে সোপর্দ করলে আসামীরা হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি দিলে,পুলিশ আসামি রকিকুল ইসলামকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চাইলে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মন্জুর করেন আসামি গামাকে জেল হাজতে পাঠায়।পরে পুলিশ আসামী রফিকুলকে রিমান্ডে নিয়ে আসলে তার দেয়া তথ্যে টিবওয়েলের পানি নিস্কাসনের নালার কাদার নিচ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছোরা,ডিসিট এর ব্যবহৃত মোবাইল ও ৭ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আশরাফুজ্জামানের কথা হলে তিনি জানান, হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটিত হয়েছে, ইতিমধ্যে দুজন আটক রয়েছে, খুব দ্রুতই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের আটক করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

Up to BDT 650 benefits on New Connection

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy24

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

Nagad-Fifa-WorldCup

ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়াল

ফলো আপ

উলিপুরে জবাই করে রফিকুল হত্যার জট খুলছে! কিলিং মিশনে ব্যবহৃত ছুরি,মোবাইল ও টাকা উদ্ধার

প্রকাশিত সময়: ১২:৩১:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৩

কুড়িগ্রামের উলিপুরে রফিকুলকে জবাই করে হত্যার চাঞ্চল্যকর মামলার জট খুলতে শুরু করেছে। হত্যাকাণ্ডের দিন সকালেই হত্যাকাণ্ডের শিকার রফিকুলের ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশী আলিফ উদ্দিনের পুত্র রফিকুলকে সন্দেহজনকভাবে পুলিশ আটক করে এবং তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতেই কিলিং মেশিনে জড়িত ফেরদৌস আলী গামা নামের আরো একজনকে আটক করেছে পুলিশ।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেছে অর্থের লোভেই কিলিং মিশনে জড়িত কয়েকজন মিলে রফিকুলকে জবাই করে হত্যা করে। হত্যাকান্ডের শিকার রফিকুলের স্ত্রী লাইজু বেগম শুক্রবার রাতেই উলিপুর থানায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। কিলিং মিশনে জড়িত অন্যদের দ্রুত গ্রেফতারে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে জেলার উলিপুর উপজেলার ধরণীবাড়ি ইউনিয়নের তেলীপাড়া গ্রামের আবুল হোসেন (ফাগু)এর পুত্র অটোচালক রফিকুল ইসলামকে কতিপয় দুর্বৃত্ত্ব জবাই করে হত্যার লাশ রাস্তার পাশে একটি বাঁশ ঝাড়ে রেখে যায় ।
শুক্রবার ভোরে তেলিপাড়া গ্রামের কয়েকজন মুসুল্লি ফজরের নামাজ পড়তে এসে লাশটি দেখতে পায় এবং পুলিশে খবর দেয়। উলিপুর থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির পর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠিয়ে দেয়।

এদিকে চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে কুড়িগ্রাম থেকে সিআইডির একটি চৌকস দল সকালেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও প্রয়োজনীয় আলামত সংগ্রহ করেন। কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম ঐদিনই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ঘটনা দ্রুত উদঘাটনে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

 নিউজ বিজয়ের সর্বশেষ খবর পেতে Google News অনুসরণ করুন

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শাহ আলম ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের ব্যাপারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান। রফিকুলের স্ত্রী লাইজু বেগম জানান, তার স্বামী রফিকুল (৩৫) প্রথম বাদাম বিক্রি করে সংসার চালাত এতে দিনকাল ভালো না যাওয়ায় চায়ের দোকানে মেসিয়ারির কাজ করেন বেশ কিছুদিন। পরবর্তীতে বিভিন্ন এনজিওর কাছ থেকে লোন নিয়ে কিছুদিন আগে একটি অটো রিক্সা ক্রয় করেন। সেটি সম্প্রতি বিক্রি করা হয়েছে বলে জানান তিনি। সেই অটো বিক্রির ৮০ হাজার টাকা সহ ঘটনার আগের দিন আশা এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকা লোন নেন। এই টাকাটা সম্পূর্ণ তার স্বামীর কাছে ছিল বলে তিনি দাবি করেন এবং এই টাকার জন্যই তার স্বামীকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। স্বামী খুন হওয়ার পর লাইজুর জীবনে এখন চরম অনিশ্চয়তা। অবুঝ দুই সন্তানকে নিয়ে কিভাবে জীবিকা নির্বাহ করবে সে চিন্তায় লাইজু এখন দিশেহারা।শনিবার পুলিশ আসামি রফিকুল ও ফেরদৌস আলী গামাকে আদালতে সোপর্দ করলে আসামীরা হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি দিলে,পুলিশ আসামি রকিকুল ইসলামকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চাইলে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মন্জুর করেন আসামি গামাকে জেল হাজতে পাঠায়।পরে পুলিশ আসামী রফিকুলকে রিমান্ডে নিয়ে আসলে তার দেয়া তথ্যে টিবওয়েলের পানি নিস্কাসনের নালার কাদার নিচ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছোরা,ডিসিট এর ব্যবহৃত মোবাইল ও ৭ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আশরাফুজ্জামানের কথা হলে তিনি জানান, হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটিত হয়েছে, ইতিমধ্যে দুজন আটক রয়েছে, খুব দ্রুতই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের আটক করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন