ঢাকা ০৭:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছাতকে এসএসসি পরিক্ষার্থী দুই ছাত্রের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনার জেরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া আহত: ১৯

সুনামগঞ্জের ছাতকে এসএসসি পরিক্ষার্থী দুই ছাত্রের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বেলা দেড়টার দিকে উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ কলেজ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় মধ্যস্থকারী, পথচারীসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১৯ জন আহত হয়েছেন।

জানা যায়, উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের আয়াজুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ে অন্যান্য দিনের ন্যায় রুটিন মোতাবেক এসএসসি পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরিক্ষা শেষে কেন্দ্র থেকে বের হয়ে বুড়াইরগাঁও এলাকায় পৌঁছামাত্র দুই পরিক্ষার্থী ছাত্রের মধ্যে পূর্ব বিরোধ নিয়ে বাক-বিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এখান থেকে তারা গোবিন্দগঞ্জে ফেরার পর দুই ছাত্রসহ তাদের পক্ষের লোকজনরা ফের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া করে। এসময় স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে দ্রুত তারা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে বাধ্য হন। পথচারিরা দিকবিদিক ছুটাছুটি করে নিরাপদ আশ্রয় খোঁজেন। পয়েন্ট এলাকা থেকে চালকরা সব ধরণের যানবাহন নিরাপদ আশ্রয়ে নিতে দেখা গেছে। সিলেট-সুনামগঞ্জ ও ছাতক সড়কে প্রায় আধঘন্টা সব ধরণের যানচলাচল বন্ধ ছিল। মধ্যস্থকারী সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম আহমেদ রায়হানকে ছাতক স্বাস্থ্য কমপেক্সে ও পারভেজ নামের এক এসএসসি পরিক্ষার্থীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্য আহতদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
খবর পেয়ে ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান, উপ-পরিদর্শক মহিন উদ্দিনসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনতে সক্ষম হন। পরে সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

আহত গোবিন্দনগর গ্রামের আশরাফ আলীর পুত্র ও গোবিন্দগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরিক্ষার্থী মারুফ আহমদ জানান, মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রে পরিক্ষা দেয়ার জন্য গেলে তকিপুর গ্রামের জনৈকের পুত্র ও এসএসসি পরিক্ষার্থী আজিজ এবং তার সাথে থাকা অন্যরা তাকে গত সোমবার কেন গালাগাল করেছি এ বিষয়ে জানতে চায়। সে কাউকে গালাগাল করেনি বলে জানিয়ে পরিক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে। পরিক্ষা দিয়ে সহপাঠী আল আমিনকে সাথে নিয়ে বের হয়ে অটো-রিকশা যোগে বাড়ি ফিরার পথে আজিজসহ গংরা তাকে গতিরোধ করে মারধর করে। পরে অন্য অটো রিকশা যোগে গোবিন্দগঞ্জ কলেজ এলাকায় পৌঁছার পর তার স্কুলের শিক্ষক ফজলুল করিম বকুল তাকে নিরাপদে নিয়ে যান। এদিকে, আজিজের সাথে যোগাযোগ করে তার বক্তব্য পাওয়া যায় নি। মধ্যস্থতা করতে গিয়ে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম আহমেদ রায়হান জানান, এসএসসি পরিক্ষার্থী গোবিন্দনগর গ্রামের মারুফ ও পুরানবাজার মাধবপুরের নাহিদের মধ্যে মারামারি হয়েছে। বুড়াইরগাঁও এলাকায় প্রথম দফা ও দ্বিতীয় দফা ঘটনা ঘটেছে গোবিন্দগঞ্জ কলেজ এলাকায়। এমন খবর পেয়ে তিনি মধ্যস্থতা করতে গিয়েছিলেন কলেজ এলাকায়। এসময় গোবিন্দগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ফজলুল করিম বকুল আহত মারুফকে সাথে নিয়ে স্কুলে যাচ্ছিলেন। আমাকেও স্কুলে যাওয়ার জন্য তিনি বলায় আমিও তার পিছনে যাচ্ছিলাম। কিন্তু আল্লাহু চত্ত্বর এলাকায় পৌঁছার আগেই চিহৃত অস্ত্রধারিরা হঠাৎ তার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত করে। তার হাত, পা ও মাথাসহ শরিরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্বক আঘাত রয়েছে।

ছাতক থানার উপ-পরিদর্শক, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের বিট অফিসার মুহিন উদ্দিন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেছে।

নিউজবিজয়/এফএইচএন

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy24

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।
জনপ্রিয় সংবাদ

Nagad-Fifa-WorldCup

ইতিহাসের এই দিনে: ৩১ জানুয়ারি-২০২৩

google.com, pub-9120502827902997, DIRECT, f08c47fec0942fa0

ছাতকে এসএসসি পরিক্ষার্থী দুই ছাত্রের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনার জেরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া আহত: ১৯

প্রকাশিত সময়: ১০:১৭:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

সুনামগঞ্জের ছাতকে এসএসসি পরিক্ষার্থী দুই ছাত্রের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বেলা দেড়টার দিকে উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ কলেজ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় মধ্যস্থকারী, পথচারীসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১৯ জন আহত হয়েছেন।

জানা যায়, উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের আয়াজুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ে অন্যান্য দিনের ন্যায় রুটিন মোতাবেক এসএসসি পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরিক্ষা শেষে কেন্দ্র থেকে বের হয়ে বুড়াইরগাঁও এলাকায় পৌঁছামাত্র দুই পরিক্ষার্থী ছাত্রের মধ্যে পূর্ব বিরোধ নিয়ে বাক-বিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এখান থেকে তারা গোবিন্দগঞ্জে ফেরার পর দুই ছাত্রসহ তাদের পক্ষের লোকজনরা ফের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া করে। এসময় স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে দ্রুত তারা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে বাধ্য হন। পথচারিরা দিকবিদিক ছুটাছুটি করে নিরাপদ আশ্রয় খোঁজেন। পয়েন্ট এলাকা থেকে চালকরা সব ধরণের যানবাহন নিরাপদ আশ্রয়ে নিতে দেখা গেছে। সিলেট-সুনামগঞ্জ ও ছাতক সড়কে প্রায় আধঘন্টা সব ধরণের যানচলাচল বন্ধ ছিল। মধ্যস্থকারী সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম আহমেদ রায়হানকে ছাতক স্বাস্থ্য কমপেক্সে ও পারভেজ নামের এক এসএসসি পরিক্ষার্থীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্য আহতদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
খবর পেয়ে ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান, উপ-পরিদর্শক মহিন উদ্দিনসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনতে সক্ষম হন। পরে সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

আহত গোবিন্দনগর গ্রামের আশরাফ আলীর পুত্র ও গোবিন্দগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরিক্ষার্থী মারুফ আহমদ জানান, মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রে পরিক্ষা দেয়ার জন্য গেলে তকিপুর গ্রামের জনৈকের পুত্র ও এসএসসি পরিক্ষার্থী আজিজ এবং তার সাথে থাকা অন্যরা তাকে গত সোমবার কেন গালাগাল করেছি এ বিষয়ে জানতে চায়। সে কাউকে গালাগাল করেনি বলে জানিয়ে পরিক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে। পরিক্ষা দিয়ে সহপাঠী আল আমিনকে সাথে নিয়ে বের হয়ে অটো-রিকশা যোগে বাড়ি ফিরার পথে আজিজসহ গংরা তাকে গতিরোধ করে মারধর করে। পরে অন্য অটো রিকশা যোগে গোবিন্দগঞ্জ কলেজ এলাকায় পৌঁছার পর তার স্কুলের শিক্ষক ফজলুল করিম বকুল তাকে নিরাপদে নিয়ে যান। এদিকে, আজিজের সাথে যোগাযোগ করে তার বক্তব্য পাওয়া যায় নি। মধ্যস্থতা করতে গিয়ে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম আহমেদ রায়হান জানান, এসএসসি পরিক্ষার্থী গোবিন্দনগর গ্রামের মারুফ ও পুরানবাজার মাধবপুরের নাহিদের মধ্যে মারামারি হয়েছে। বুড়াইরগাঁও এলাকায় প্রথম দফা ও দ্বিতীয় দফা ঘটনা ঘটেছে গোবিন্দগঞ্জ কলেজ এলাকায়। এমন খবর পেয়ে তিনি মধ্যস্থতা করতে গিয়েছিলেন কলেজ এলাকায়। এসময় গোবিন্দগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ফজলুল করিম বকুল আহত মারুফকে সাথে নিয়ে স্কুলে যাচ্ছিলেন। আমাকেও স্কুলে যাওয়ার জন্য তিনি বলায় আমিও তার পিছনে যাচ্ছিলাম। কিন্তু আল্লাহু চত্ত্বর এলাকায় পৌঁছার আগেই চিহৃত অস্ত্রধারিরা হঠাৎ তার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত করে। তার হাত, পা ও মাথাসহ শরিরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্বক আঘাত রয়েছে।

ছাতক থানার উপ-পরিদর্শক, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের বিট অফিসার মুহিন উদ্দিন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেছে।

নিউজবিজয়/এফএইচএন