টানা সাতদিন নাগরিক সেবা বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে বীরগঞ্জ পৌরবাসী

দিনাজপুর থেকে সিদ্দিক হোসেন : রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন-ভাতার দাবিতে রোববার থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অবস্থান নিয়েছেন। ফলে টানা সাত দিন ধরে সেবা বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ পৌরসভার বাসিন্দারা। জানা যায়, রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে শতভাগ বেতন-ভাতাসহ পেনশনের দাবিতে মঠবাড়িয়া সহ দেশের ৩২৮টি পৌরসভায় সাত দিন ধরে দাপ্তরিক ও সব ধরনের সেবা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। শনিবার সকালে বীরগঞ্জ পৌরসভার সচিব ও কর্মকর্তা কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন অর রশিদ প্রেসক্লাবের সামনে থেকে ফোনে বলেন, রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা পাওয়া আমাদের অধিকার, আমাদের আন্দোলন চলমান রয়েছে, দাবি আদায় না করা পর্যন্ত আমরা ঘরে ফিরবো না। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের ন্যায়সংগত দাবি অতি দ্রুতই মেনে নেবেন। বীরগঞ্জ পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা প্রভাষক মোঃ আবু সামা ঠান্ডু বলেন, পৌরসভার সব ধরনের সেবা বন্ধ থাকায় আমরা বেশ ভোগান্তিতে পড়েছি, বিশেষ করে এলাকার অলিগলিতে জমেছে ময়লার স্তুপ, যা থেকে বের হচ্ছে উৎকট পচা দুর্গন্ধ। পৌরসভার সকল দাপ্তরিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় পৌরবাসী’র নাগরিক সেবা যেমন- জন্ম নিবন্ধন সনদ, মৃত্যু নিবন্ধন সনদ উত্তোলন ছাড়া বিভিন্ন নাগরিক সেবা ব্যাহত হচ্ছে। এছাড়া পৌর এলাকায় ল্যাম্প পোষ্ট বাতি সেবা বন্ধ থাকায় রাতে অন্ধকারে থাকছে রাস্তা-ঘাট, হাট-বাজার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ফলে রাতের অন্ধকারে পৌর এলাকায় ঘটছে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ড। পৌর এলাকার অভিজ্ঞ মহল মনে করেন, রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা সহ পেনশন প্রদান করা হলে তাদের সকল আন্দোলন বন্ধ হবে। এব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.