ঢাকা ১২:০৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ডোমারে পরকিয়া করতে গিয়ে পুলিশের এসআই আটক, ধর্ষণ মামলায় শ্রীঘরে

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় এক পুলিশের এসআই বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পরোকিয়া করতেগিয়ে হাতেনাতে আটক। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছে দুই সন্তানের জননী এক নারী সুমনা আক্তার (৩০)। বৃহস্পতিবার (৬ই অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ৩টায় ডোমার থানায় ভুক্তভোগী প্রেমিকা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন-২০০০ (সংশোধিত-৩) এর ৯(১) ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর-০৩।
এজাহার সুত্রে জানা যায়, ডোমার উপজেলার পশ্চিম চিকনমাটি আরডিআরএস মোড় এলাকার রাজীব হোসেনের স্ত্রী সুমনা আক্তার তার স্বামীর নামে এক বছর পূর্বে একটি মামলা করেন। সেসময় ডোমার থানায় কর্মরত ছিলেন শ্রী মহাবীর ব্যানার্জী নামে এক পুলিশের এসআই। সেই মামলার তদন্তের মাধ্যমে সুমনার সাথে পরিচয় হয় তার। সেসময় বিভিন্ন ছলে মোবাইল ফোনে কথা বলতো মহাবীর এবং বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দেয়। এরপর সে ডোমার থানা থেকে অন্যত্র বদলী হয়। বর্তমানে নারায়নগঞ্জে র‌্যাব ১১ তে কর্মরর্ত আছেন। মামলায় আরও জানা যায়, গত ২৮শে আগস্ট রাত ১১টার দিকে সুমনার বাড়িতে আসে মহাবীর।
সেসময় সুমনার স্বামী বাড়িতে ছিল না, সন্তানরা ঘুমন্ত থাকায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে মহাবীর। এরপর গতকাল (৫ই অক্টোবর) রাত ৯টায় পুনরায় এসে ধর্ষণ করে। এসময় বাড়ির প্রধান দরজায় এসে ইসমাইল হোসেন ও জুয়েল ইসলাম নামে দুই আত্মীয় ডাকাডাকি করলে দরজা খুলে দেন সুমনা। তখনই শয়নকক্ষের বেলকনি থেকে আসামী মহাবীর ব্যানার্জীকে আটক করে তারা। এরপর পুলিশের হস্তক্ষেপে থানায় নেওয়া হয়। মামলাটির আসামী শ্রী মহাবীর ব্যানার্জী (৪২) দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার কেউটপাড়া রসুলপুর গ্রামের কালী মোহন ব্যানার্জীর পুত্র। সে গত এক বছর পূর্বে ডোমার থানায় কর্মরত ছিল।
এবিষয়ে ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী জানান, আমাদের কাছে ভুক্তভোগী সুমনা আক্তার এজাহার দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আসামী মহাবীরকে জেলা আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
নিউজবিজয়/এফএইচএন

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy24

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।
জনপ্রিয় সংবাদ
google.com, pub-9120502827902997, DIRECT, f08c47fec0942fa0

ডোমারে পরকিয়া করতে গিয়ে পুলিশের এসআই আটক, ধর্ষণ মামলায় শ্রীঘরে

প্রকাশিত সময়: ০২:৫৭:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় এক পুলিশের এসআই বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পরোকিয়া করতেগিয়ে হাতেনাতে আটক। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছে দুই সন্তানের জননী এক নারী সুমনা আক্তার (৩০)। বৃহস্পতিবার (৬ই অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ৩টায় ডোমার থানায় ভুক্তভোগী প্রেমিকা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন-২০০০ (সংশোধিত-৩) এর ৯(১) ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর-০৩।
এজাহার সুত্রে জানা যায়, ডোমার উপজেলার পশ্চিম চিকনমাটি আরডিআরএস মোড় এলাকার রাজীব হোসেনের স্ত্রী সুমনা আক্তার তার স্বামীর নামে এক বছর পূর্বে একটি মামলা করেন। সেসময় ডোমার থানায় কর্মরত ছিলেন শ্রী মহাবীর ব্যানার্জী নামে এক পুলিশের এসআই। সেই মামলার তদন্তের মাধ্যমে সুমনার সাথে পরিচয় হয় তার। সেসময় বিভিন্ন ছলে মোবাইল ফোনে কথা বলতো মহাবীর এবং বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দেয়। এরপর সে ডোমার থানা থেকে অন্যত্র বদলী হয়। বর্তমানে নারায়নগঞ্জে র‌্যাব ১১ তে কর্মরর্ত আছেন। মামলায় আরও জানা যায়, গত ২৮শে আগস্ট রাত ১১টার দিকে সুমনার বাড়িতে আসে মহাবীর।
সেসময় সুমনার স্বামী বাড়িতে ছিল না, সন্তানরা ঘুমন্ত থাকায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে মহাবীর। এরপর গতকাল (৫ই অক্টোবর) রাত ৯টায় পুনরায় এসে ধর্ষণ করে। এসময় বাড়ির প্রধান দরজায় এসে ইসমাইল হোসেন ও জুয়েল ইসলাম নামে দুই আত্মীয় ডাকাডাকি করলে দরজা খুলে দেন সুমনা। তখনই শয়নকক্ষের বেলকনি থেকে আসামী মহাবীর ব্যানার্জীকে আটক করে তারা। এরপর পুলিশের হস্তক্ষেপে থানায় নেওয়া হয়। মামলাটির আসামী শ্রী মহাবীর ব্যানার্জী (৪২) দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার কেউটপাড়া রসুলপুর গ্রামের কালী মোহন ব্যানার্জীর পুত্র। সে গত এক বছর পূর্বে ডোমার থানায় কর্মরত ছিল।
এবিষয়ে ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী জানান, আমাদের কাছে ভুক্তভোগী সুমনা আক্তার এজাহার দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আসামী মহাবীরকে জেলা আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
নিউজবিজয়/এফএইচএন