ডোমার মিরজাগঞ্জে প্রতারনা করতে গিয়ে সাইকেলসহ ভুয়া গোয়েন্দা আটক

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডোমার মিরজাগঞ্জে প্রতারনা করতে গিয়ে ভুয়া গোয়েন্দা সাইকেলসহ আটক, গণ ধোলায়ের শিকার।

ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলা জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের মিরজাগঞ্জ রেল ষ্টেশন বাজারে। জানা যায়, উক্ত ইউনিয়নের দক্ষিণ জোড়াবাড়ী এলাকার ৩নং ওয়ার্ডের ওস্তাপাড়া গ্রামের মোসলেম উদ্দিন মেকারের ছেলে খাটো মাষ্টার (২৫) দির্ঘদিন ধরে শিশুদের প্রাইভেট পড়াতেন। গত ৬ মাস থেকে হটাৎ করে নিজেকে গোয়েন্দা, সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মী পরিচয় দিয়ে এলাকায় বাল্য বিবাহ, ক্যামবোর্ড, জুয়ার আসর, ঔষধের দোকান, কাপড়ের দোকান, প্রাইমারী স্কুলসহ বিভিন্ন স্থানে হুমকি, ধামকি ও ভয়ভীতি দেখীয়ে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যার কারনে কয়েকদিন পূর্বে ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম ও এলাকাবাসী আজিজার মিয়ার হাটে প্রাইমারী স্কুলে বেধেরেখে তাকে মারধর করে শেষে বিচার শালিশ বসিয়ে এমন কাজ করবেনা মর্মে ছাড়াপায়। গত ১২ জানুয়ারী ইউনিয়নের কাওলাপাড়া গ্রামের অসহায় দিন মুজুর আনু হোসেনের প্রতিবন্ধি কন্যা মনি আক্তারের বিয়ের ৭০ হাজার টাকা প্রতারনা করে হাতিয়ে নেয়। আনু ডোমার থানায় অভিযোগ দায়ের করের অদ্যবদি টাকা ফেরত না পাওয়ায় পুশিশের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রতিবন্ধি মনির পারিবার। বর্তমানে খাটো মাষ্টার নতুন কৌশলে নিজেকে বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক পরিচয়ে বিভিন্ন হাটে বাজারে সাইনবোর্ড ব্যানার টাংঙ্গীয়ে খাস জমি উদ্ধারের নাম করে সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে ফরম পূরনের নাম করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অনেকে অভিযোগ করেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত সোমবার খাটো মাষ্টার মিরজাগঞ্জ রেল ষ্টেশন বাজারে মেসার্স আনোয়ার হোসেনের মুদিখানার দোকানে ৩ হাজার টাকার বিভিন্ন মালামাল নিয়ে কৌশলে পালানোর সময় এলাকাবাসী খাটো মাষ্টারকে বাই সাইকেলসহ আটক করে গণ ধোলাই দেয়। পরে টাকা দেয়ার নাম করে সাইকেল রেখে পালিয়ে গিয়ে উল্টো দোকানী আনোয়ারকে হুমকি ধামকি দেন বলে তিনি জানান। সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য আঃ সালাম বলেন, খাটো মাষ্টর একজন ঠকবাজ ও প্রতারক, বিভিন্ন সময় নানা মূখী নাম ব্যবহার করে মানুষের সাথে প্রতারনা করাই তার আসল কাজ। একাধীকবার বিচার করেও কোন ফল হয়নি, তার বিরুদ্ধে থানায় ও আদালতে একাধীক মামলা রয়েছে। এ বিষয়ে খাটো মাষ্টারের কাছে জানতে চাইলে সাংবাদিকের নাম শুনে ফোন কেটে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon