তৃতীয়বার ভারতকে হারাল বাংলাদেশ।

স্পোর্টস ডেস্ক: ইংল্যান্ডের পর ভারত অনুর্ধ্ব-১৯ দলকে হারাল বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল। যুব ক্রিকেটে এ নিয়ে তৃতীয়বার ভারতকে হারাল বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে বাংলাদেশের যুবাদের আমন্ত্রণে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৬ ওভারে ২২১ রান তুলে ভারতীয় যুবারা। বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে নামার সময় আবার বৃষ্টির হানা। বৃষ্টি আইনে বাংলাদেশ ৩২ ওভারে ২১৮ রানের লক্ষ্য পায়। ৩ বল হাতে রেখে ২ উইকেটের জয় তুলে নেয় জুনিয়র টাইগাররা।

লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য প্রয়োজন ছিল দায়িত্বশীল ইনিংস। শুরুতে ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন ৪৫ বলে ৫১ রান তুলে কাজটা সহজ করেন। তাকে সঙ্গ দেন মাহমুদুল হাসান জয় (২০) ও তৌহিদ হৃদয় (৩০)। তবে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বাংলাদেশ হারায় উইকেট। ১৯তম ওভারে হৃদয় যখন আউট হন বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ১১৯। জয়ের থেকে ৯৯ রান পিছিয়ে। ৭৯ বলে এ রান করতে হতো বাংলাদেশকে।

অধিনায়ক আকবর ছয় নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে দলের দায়িত্ব নিজ কাঁধে নেন। ২২ গজে দ্যুতি ছড়াতে থাকেন শুরু থেকে। উইকেটের চারপাশে শট খেলে লক্ষ্য নাগালে নিয়ে আসেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। তাকে সঙ্গ দেন শামীম হোসেন (২২) ও মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী (১৬)। কিন্তু আকবর বাদে কেউই শেষ পর্যন্ত টিকতে পারেননি।

শেষ ১২ বলে ১৯ রান দরকার ছিল বাংলাদেশের। প্রথম দুই বলে ২ রান পায় বাংলাদেশ। তৃতীয় বলে আউট হন লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান রকিবুল। পঞ্চম ও ষষ্ঠ বলে ভারতীয় পেসার পুরনাক তিয়াগীকে ছক্কা, চার মারেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। শেষ ওভারে জয়ের থেকে ৭ রান দূরে ছিল টাইগাররা।

প্রথম তিন বলে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ৪ রান। চতুর্থ বলে কার্তিক তেয়াগির বল বাউন্ডারির বাইরে পাঠান আকবর। জয়সূচক রানটি আসে তার ব্যাট থেকে। ৩৬ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৪৯ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন আকবর। তার দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে যুব ক্রিকেটে তৃতীয়বারের মতো ভারতকে হারাল বাংলাদেশকে।

এর আগে ২০০২ সালে আশরাফুল, আফতাবরা এবং ২০১৭ সালে সাইফ হাসান, আফিফ হোসেনরা ভারতকে হারিয়েছিল। সব মিলিয়ে যুব ক্রিকেটে ভারতের বিপক্ষে ১৯ ম্যাচে ১৬ হারের বিপরীতে ৩ জয় বাংলাদেশের।

বাংলাদেশের আমন্ত্রণে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রাগনেস দুরগেস ও ধ্রুব জুরেলের হাফ সেঞ্চুরিতে লড়াকু সংগ্রহ পায় ভারত। প্রাগনেস ৫৩ ও ধ্রুব সর্বোচ্চ ৭০ রান করেন। ওপেনিংয়ে কামরান ইকবাল করেন ৪৪ রান। বল হাতে বাংলাদেশের সেরা শরীফুল ইসলাম। ৭ ওভারে ৪৯ রানে ২ উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন মৃত্যুঞ্জয়, শাহীন ও শামীম।

৫ ম্যাচে ৩ জয় ও ১ পরাজয় নিয়ে বাংলাদেশ ত্রিদেশীয় সিরিজের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে। ভারতের অবস্থান দুইয়ে। ইংল্যান্ড সবার নিচে। পহেলা আগস্ট বাংলাদেশের পরবর্তী ম্যাচ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon