দিনাজপুরে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সিভিল সার্জন

দিনাজপুর থেকে সিদ্দিক হোসেন : দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস বলেছেন, সুস্থ্য শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনের দেশ পরিচালনার কর্ণধার। তাদের মেধা বিকাশের ক্ষেত্রে প্রতিটি শিক্ষার্থীদের মাঝে পুষ্টিযুক্ত খাদ্য প্রয়োজন। অথচ শরীরের মধ্যে থাকা পুষ্টি গুলো কৃমি খেয়ে ফেলে। ফলে তাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কমে আসে। তাই তাদের সুস্থতার জন্য সরকার প্রতিবছর দুইবার কৃমি নাশক বড়ি ৫ থেকে ১৬ বছরের সকল শিশুকে কৃমি নাশক বড়ি খাওয়ানোর কর্মসূচী বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। শুধু শিক্ষার্থীদের কৃমির বড়ি খাওয়ালে চলবে না। তাদের পরিবারের সকল সদস্যদের কৃমির বড়ি খাওয়াতে হবে। কৃমি নাশক বড়ির খেলে তার কোন পাশ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তিনি আরোও বলেন, প্রতিটি শিক্ষার্থীরা খাওয়ার পূর্বে হাত ধুয়ে খেতে হবে এবং খোলা খাবার বর্জন করতে হবে।

৬ মার্চ শনিবার উত্তর বালুবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের হলরুমে সিভিল সার্জন কার্যালয় আয়োজিত জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ ৬ থেকে ১১ এপ্রিল-২০১৯ পালন উপলক্ষে উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা গুলো বলেন। ডিপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ নাজমুল ইসলামের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আরোজউলাহ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ক.খ. আউলাদী হাদী, সিভিল সার্জন কাযালয়ের মেডিকেল অফিসার ডাঃ রায়হান সাঈদ ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেতারা বেগম। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের জুনিয়ার স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মোঃ নুরুল ইসলাম। উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস উত্তর বালুবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন ক্ষুদে ডাক্তারকে কৃমি নাশক বড়ি খাইয়ে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রন সপ্তাহের উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon