প্রেমের জন্য বাবাকে খুন করালেন মেয়ে!

বিজয় ডেস্ক: প্রেমিকাকে মারধর করতেন তার বাবা। ভবিষ্যতে বিয়ের পথেও তিনিই ছিলেন একমাত্র পথের কাঁটা। তাই উপায় বাতলে দিয়েছিল প্রেমিকাই। সেই মতোই প্রেমিকার বাবাকে খুন করল দশম শ্রেণির এক ছাত্র।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের শামলিতে। অভিযুক্ত ছাত্র এবং তার সহযোগীকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে ওই ছাত্র স্বীকার করে নিয়েছে, প্রেমিকার কথাতেই তার বাবাকে খুন করেছে সে। এমনকী, খুনে যে বন্দুকটি ব্যবহৃত হয়, সেটিও প্রেমিকাই তাকে দিয়েছিল বলে জানিয়েছে ওই ছাত্র।

মৃত রাকেশ নামে ওই ব্যক্তি দিল্লিতে চাকরি করতেন। কয়েকদিন আগে ট্রেন থেকে নেমে বাড়ি ফেরার সময়েই তাঁকে গুলি করে খুন করা হয়। তদন্তে নেমে এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে ওই ছাত্র এবং তার সহযোগীকে গ্রেফতার করে উত্তর প্রদেশ পুলিশ।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, রাকেশের ছোট মেয়ের সঙ্গে ওই ছাত্রের প্রেম ছিল। প্রেমিকার কথাতেই রাকেশকে খুন করেছে সে।

সংবাদমাধ্যমকে বেশ নির্লিপ্ত ভঙ্গিতেই ওই ছাত্র জানায়, প্রেমিকাকে নিয়মিত মারধর করত তার বাবা। দশম শ্রেণীতে পড়ার সময় টিউশন ক্লাসে দু’জনের আলাপ হয়। মাঝে বেশ কিছুদিন সম্পর্ক ছিল না।

তার পরে ফের ফেসবুকের মাধ্যমে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর পরই প্রেমিকা তার বাবার বিরুদ্ধে প্রেমিকের কাছে নিত্য অভিযোগ করতে থাকে। বাবা বেঁচে থাকলে যে ভবিষ্যতে তাদের বিয়ে হবে না, তাও জানিয়ে দেয় প্রেমিকা। এর পরেই প্রেমিকাই তার বাবাকে সরিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দেয় ওই ছাত্রকে।

প্রেমিকার কথা আর ফেলতে পারেনি দশম শ্রেণির ওই ছাত্র। সে জানিয়েছে, ভবিষ্যতে প্রেমিকাকে বিয়ে করার আশাতেই তার বাবাকে খুন করেছে। আপাতত সেই স্বপ্ন অবশ্য জোর ধাক্কা খেয়েছে। প্রেমিক ছাত্রটিকে গ্রেফতার করার পরে এই খুনের ঘটনায় আর কে কে জড়িত, তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon