স্বপ্ন জয়ে এগিয়ে যাচ্ছে তিন প্রতিবন্দি বাবুল, রফিকুননবীসহ সোহাগ চন্দ্র

কাজী আলতাব হোসেন,হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) থেকেঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার আলিমুদ্দিন সরকারী কলেজ কেন্দ্রে বাবুল ইসলাম রফিকুননবী ও সোহাগ চন্দ্র তিনজন মেধাবী প্রতিবন্দি ছাত্র মুখে এবং পায়ে কলম দিয়ে লিখে এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার কলেজ কেন্দ্রে ৩০৫,৩০৩ ও ৩০৪ নং হলরুমে গিয়ে দেখাগেছে, অন্যান্য সাধারন ছাত্র/ছাত্রীদের সাথে সীট বেঞ্চে বসে ব্যবসায় গনিত ও পরিসংখ্যান পরিক্ষায় মুখে দাতে ও পায়ে কলম আকড়ে উত্তর পত্র পরিক্ষা দিচ্ছে ৩ প্রতিবন্দি।

জানাগেছে, পার্শ্ববতি পাটগ্রাম উপজেলার কুচলিবাড়ী গ্রামের আঃ করিম মিয়ার পুত্র বাবুল ইসলাম দুই ভাই তিন বোনের মধ্যে কনিষ্ঠ্য বাবুল। অপর ছেলে মেয়েদের তুলনায় কনিষ্ঠ্য ছেলে বাবুল প্রতিবন্দি হওয়ায় দুচিন্তায় হাবুডাবু করছিল বাবা মা। কিন্তু কিছুতেই পিছিয়ে পরেনি বাবুল মুখের ভিতর দাত দিয়ে কলম আকড়ে উত্তরপত্র লিখেই এগিয়ে চলছে। বাস্তবে ইচ্ছা ও মেধা শক্তি দমাতে পারেনি বাবুলকে। এ অদম্য বাবুল ইলাম প্রাথমিক সমাপনি,জুনিয়র সাটিফিকেট এবং এসএসসি পরিক্ষায় তার মেধার পরিচয় দিয়েছে জিপিএ ৫ দিয়ে। উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষার আশায় সে হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা টেনিক্যাল বিএম কলেজে এইচএসসিতে ভর্তি হয়। যাহার শ্রেণী রো নং-০৪। এবছর ঐ কলেজ থেকে এইচএসসি পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করে হাতীবান্ধা আলিমুদ্দিন সরকারী কলেজ তার পরিক্ষা কেন্দ্র। পরিক্ষা কেন্দ্র সচিব রেজাউল করিম প্রধান জুয়েল জানান, বাবুল সহ আমার এ কেন্দ্রে মোট ৩ জন প্রতিবন্দি পরিক্ষার্থী পরিক্ষায় অংশ নিয়েছে। পতিবন্দি হিসাবে তাদেরকে বিশেষ সুবিধার আশ্বাস দেওয়া হলেও তারা অন্যান্য সাধারন পরিক্ষার্থীর ন্যায় যথাযত নিয়মেই পরিক্ষা দিচ্ছে। তারা পরিক্ষা শুরু থেকেই অত্যান্ত সাবলিল গতিতে সব কয়েকটি পরিক্ষায় উত্তর পত্র লিখেছে। এসময় উপজেলা মাধ্যমিক একাডেমিক সুপারভাইজার শহিদুল ইসলাম ও আইসিডি কর্মকর্তা রেজাউল ইসলাম জানান,বাবুল ইসলাম, রফিকুননবী, সাথী ও সোহাগ চন্দ্র প্রতিবন্দি হয়েও। শিক্ষা উন্নয়নকে এগিয়ে নেওয়ার একটি উদাহরন। তারা প্রতিবন্দি হলেও অন্য সাধারন পরিক্ষার্থীর সাথে পরিক্ষায় অংশ নিয়েছে। তাদের অদ্যম ইচ্ছার করনেই তারা লেখাপড়ায় এগিয়ে যাচ্ছে। এ দিকে কলেজের অধ্যক্ষ জাহিদ আলম ও উপাধ্যক্ষ তবারক হোসেন জানান,তারা প্রতিবন্দি হওয়া স্বর্তেও নিয়মিত ক্লাস করেছে। ক্লাস পরিক্ষায় তাদের ফলাফল সন্তষ্ট জনক ছিল। এইচএসসি পরিক্ষায়ও তারা ভাল ফলাফল করবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি। পরিক্ষা শেষে কথা হয়,বাবুল ইসলাম,রফিকুননবী ওসোহাগের সাথে তারা জানান, উচ্চ শিক্ষা অর্জন করে ভাল চাকুরী করবে বলে সকলের নিকট দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করে। #

ছবি ক্যাপশন-হাতীবান্ধা আলিমুদ্দিন সরকারী কলেজ কেন্দ্রে বাবুল ইসলাম সহ তিন প্রতিবন্দি মুখে ও পা দিয়ে উত্তর পত্র লিখছেন।

নিউজবিজয়২৪.কম/মো: ফারুক হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.