হাতীবান্ধায় তিস্তার পানি কমলেও দুর্ভোগ বেড়েছে

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় তিস্তা নদীর পানির প্রবাহ কমেছে। সোমবার দুপুরে তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে নদীর পানি প্রবাহ ৫২ দশমিক ৬০। গত রোববার পানি প্রবাহ ছিল ৫২ দশমিক ৮৫। এ নদীর পানি প্রবাহ কমলেও জন দুর্ভোগ বেড়েছে।কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। প্রয়োজনীয় ত্রাণ, শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে। উপজেলার গড্ডিমারী ইউনিয়নের গড্ডিমারী স্কুল সংলগ্ন একটি পাকা ও কাঁচা রাস্তা এবারের বন্যায় ভেঙ্গে পানি লোকালয়ে পানি প্রবেশ করে। ফলে ওই এলাকার লোকজন চলাফেরায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। ৩/ ৪ কিলোমিটার ঘুরে তাদেরকে হাট-বাজার, স্কুল- কলেজ, হাসপাতালে আসতে হচ্ছে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সোলায়মান মিঞা বলেন, জলাবদ্ধতার কারনে হাতীবান্ধা উপজেলায় ১৮টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছুটি ঘোষনা করা হয়েছে। উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা কন্দর্প নারায়ন রায় বলেন, ডাউয়াবাড়ি আছের মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয় ঝুঁকিপূর্ন অবস্থায় রয়েছে।ওই স্কুলসহ গড্ডিমারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্লাস বন্ধ রয়েছে। এছাড়া বন্যার কারনে নদী কবলিত আশপাশের বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থী উপস্থিতি কমে গেছে। বন্যার কারনে গড্ডিমারী, শিংগীমারী, সিন্দুর্না, পাটিকাপাড়া ও ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের নদী তীরবর্তী এলাকার মানুষজন দু:চিন্তায় দিনাতিপাত করছে। বয়স্ক পুরুষ-মহিলা, শিশু,গর্ভবতী নারী, অসুস্থ্য লোকজনকে নিয়ে তারা রয়েছে বিপাকে।হাতীবান্ধা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফেরদৌস আহমেদ বলেন, উপজেলায় এ পর্যন্ত ৬০ মেট্রিকটন চাল বিতরণ করা হয়েছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon