হাতীবান্ধায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌনহয়রানির অভিযোগ ষড়যন্ত্রমূলক

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ধুবনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুলতান আহম্মেদ শিপু’র বিরুদ্ধে ম্যানেজিং কমিটির কয়েকজন সদস্য ও সহকারী শিক্ষকদের যৌন হয়রানির অভিযোগ ষড়যন্ত্রমূলক। ওই বিদ্যালয়ের জনৈক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনে অনলাইন নিউজ পোর্টালে ”হাতীবান্ধায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ” শিরোনাম একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়। ঘটনাটি সত্য নয়, বরং এটি ষড়যন্ত্রমূলক বলে প্রতীয়মান হয়।

প্রকাশ থাকে, গত বুধবার ওই বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর সেই ছাত্রীর বাবা লিখিত অভিযোগ দাখিল করে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে বিচারের দাবি জানান। লিখিত অভিযোগে ছাত্রীটির বাবা বলেন, ধুবনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোশারফ হোসেনসহ কমিটির কয়েকজন সদস্য ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকাদের সঙ্গে যোগসাজস করে তার মেয়েকে দিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা যৌন হয়রানির অপবাদ গত ২৪/০৩/২০১৯ তারিখ থেকে নানাভাবে প্রচার করে চলেছেন। তিনি বলেন, গত ২৬/০৩/২০১৯ তারিখে তারা মেয়েকে বাড়িতে একা পেয়ে সাংবাদিক ডেকে ভয়ভীতি দেখিয়ে একটি সাজানো ভিডিও রেকর্ড করে এবং তা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচার করে। এর ফলে মেয়েটির পরিবার সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হয়েছে।

ফলে মেয়েটি মানসিকভাবে হতাশাগ্রস্ত হয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। এ কারণে গত ২৮/০৩/২০১৯ তারিখে মেয়েটিকে নিয়ে যাতে করে কেউ কোনো অসামাজিক কথা বা মিথ্যা অপবাদ বা আলোচনার মতো নোংরামি না করেন সেজন্য তিনি প্রধান শিক্ষকের কাছে আবেদন জানান। এরপর মেয়েটি নিয়মিত স্কুলে যাওয়াআসা করতে থাকে।

উল্লেখ্য, প্রধান শিক্ষক সুলতান আহম্মেদ শিপুর বিরুদ্ধে মেয়েটির বাবার কোনো অভিযোগ নেই। তিনি আরও বলেন, প্রধান শিক্ষক দ্বারা তার মেয়ে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে এরকম কোনো অভিযোগ তিনি মোশারফ হোসেন বা কাউকে জানাননি। অথচ উক্ত মোশারফ ও তার দলবল মেয়ের বিষয়ে ৩/৪/২০১৯ তারিখে স্কুলে রেজ্যুলেশন করে মিথ্যা অপবাদ লেখেন এবং বিভিন্ন দপ্তরে পাঠান। বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে পরিবারটির মানসম্মানের ক্ষতি করা হয়। মেয়েটির বাবা এসবের বিচার চান। ভিডিও রেকর্ড এবং মোশারফ ও তার দলের মিথ্যা অপবাদের কারণে মেয়েটির যদি জীবনের ক্ষতি হয় তাহলে তিনি আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন।

প্রধান শিক্ষককে সরানোর ষড়যন্ত্রে যাতে এই কুচক্রীরা মেয়েটিকে ব্যবহার করতে না পারে সেজন্য মেয়েটির বাবা কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য চিহ্নিত মহলটি উঠে পড়ে লেগেছে। তিনি এই নোংরা ষড়যন্ত্রের প্রতিকার চান।

নিউজবিজয়২৪.কম/মো: ফারুক হোসেন (নিশাত)

Leave a Reply

Your email address will not be published.