হাতীবান্ধায় ভয়াভহ বন্যা ২২ গ্রাম প্লাবিত ১০ হাজার পরিবার পানি বন্দি

হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি-গত এক সপ্তাহব্যাপী টানা ভারি বর্ষন ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় দেখা দিয়েছে ভয়াভহ বন্যা। তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে বিপদ সীমার ৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়ায় ভাটিতে নদী কবলিত ৬টি ইউনিয়নে ২২ গ্রাম প্লাবিত হয়ে প্রায় ১০হাজার পরিবার পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। বন্যা এলাকা গৃহপালিত পশু সহ সাধারনের দূর্ভোগ চরমে উঠেছে।

শনিবার সকাল থেকে উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকা ঘুরে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও শুক্রবার রাতে আর্কষিকভাবে তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পায় এব ব্যারেজ পয়েন্টে ৫০ সেন্টিমিটার বিপদ সিমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়। এক পর্যায়ে ব্যারেজ হুমকির সম্মুখীন হওয়ায় ৪৪টি গেট খুলে দিলে ভাটিতে নদী কবলিত গড্ডিমারী, সিংগীমারী, সিন্দুর্না,পাটিকাপাড়া,ডাউয়াবাড়ী ও সানিয়াজানসহ ৬ টি ইউনিয়নে দেখা দেয় ভয়াভহ বন্যা। এবং পানির প্রবল তোড়ে হাতীবান্ধা বড়খাতা যোগাযোগের একমাত্র বাইপাস আঞ্চলিক পাকা সড়কটি গড্ডিমারী ৬ নং ওয়ার্ডের মধ্যবর্তি স্থানে ভেঙ্গে যায়। ফলে তিস্তার পানি সতি নদীতে মিশে মধ্যগড্ডিমারী,দক্ষিন গড্ডিমারী,ধুবনীসহ আরও নতুন বেশ কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়। এছারাও তিস্তা নদীর পাড় ঘেসে দির্ঘ্য বন্যা নিয়ন্ত্রন মাটির বাধটি ৭/৮টি স্থানে ভেঙ্গে মোট ৬ টি ইউনিয়নে ২২ গ্রাম প্লাবিত হয়ে প্রায় ১০হাজার পরিবার পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। এসব পরিবারে শিশু বৃদ্ধ ও প্রতিবন্দিসহ গৃহপালিত গরু,ছাগল, হাঁস, মুরগী নিয়ে সিমাহীন দূভোর্গে পরেছে বন্যা এলাকার মানুষ। তেমনি দেখা দিয়েছে শুকনো খাবার,বিশুদ্ধ পানির সংকট। ভেসে গেছে শত শত মৎস চাষীর পুকুরভরা মাছ,বিনিষ্ট হয়েছে উঠতি ফসল বাদাম,মরিচ,ভুট্টা নানা জাতের সবজি ক্ষেত এবং রোপা আমনের বীজতলা। সপ্তাহব্যাপী বন্যা দূগর্ত এলাকায় ৩ দিনে মাত্র ৪০ মেট্রিকটন চাউল ত্রান ও ২৫শত প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরন করা হয়েছে বলে ত্রান কর্মকর্তা ফেরদৌস আহম্মেদ জানান। অপরদিকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মামুন ও ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ আতিয়ার রহমান,মনোয়ার হোসেন দুলু,নুরুল আমিন সহ সংশ্লিষ্টি ইপি চেয়ারম্যান বৃন্দু জানান চাহিদার তুলনায় সরকারী ত্রান বরাদ্দ অত্যান্ত নগন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Right Menu Icon